The New Life Mission

আবাসতাম্বুর অধ্যয়ন

ভাষা
  • আবাস তাম্বু যীশু খ্রীষ্টের ছায়া যিনি ইস্রায়েলীয়দের ও যারা তাঁকে বিশ্বাস করে সেই সকলের পাপ ক্ষমা করেছেন৷ আমাদের প্রভুই আবাস তাম্বুর মালিক৷ তিনি সেই ত্রাণকর্তা যিনি একেবারেই সকলের পাপ মুছে দিয়েছেন, এবং একই সময়ে, সমগ্র মানবজাতির জন্য নিজেকে উত্সর্গ করেছিলেন৷
  • যদিও ইস্রায়েলের লোকেরা প্রতিদিন পাপ করত, কিন্তু তবুও বলিদান প্রথা অনুসারে আবাস তাম্বুর প্রাঙ্গনে তারাবলিদানের নিঁখুত পশুর মাথায় হস্তার্পণ করবার দ্বারা তারা বলিকৃত পশুতে তাদের পাপ হস্তান্তর করতে পারত৷ এইভাবেই যারাই যাজকদের পরিচর্যাতে ও বলিদানের বিধি অনুসারে বলি উত্সর্গে বিশ্বাস করত, তারা সকলেই তাদের পাপ ধৌত করে এবং তুষারের ন্যায় শুভ্র হয়ে গিয়ে, পাপের মোচন গ্রহণ করতে পারতো৷ একইভাবে, যীশুর বাপ্তিস্ম ও আত্মত্যাগে বিশ্বাস করবার দ্বারা, যা আবাস তাম্বুর সত্য সারবস্তু, ইস্রায়েলের লোকেরা এবং আমরা যারা পরজাতি আমরা আমাদের সকল পাপের ক্ষমার ও চিরকাল প্রভুর সাথে বাস করবার আশীর্বাদে বস্ত্রাবৃত হয়েছি৷
  • শুধুমাত্র ইস্রায়েলীয়রাই নয়, কিন্তু সকল পরজাতীয়রাও কেবলমাত্র যীশুকে, আবাসের প্রভুকে, বিশ্বাস করবার দ্বারা তাদের সকল পাপ হতে মুক্ত হতে পারে৷ আবাস তাম্বু আমাদেরকে ঈশ্বর প্রত্যেককে পাপ মোচনের যে বরদান দিয়েছেন সেটি আসলে কি তা শিক্ষা দেয়৷ এইভাবে, আবাস তাম্বু নিজেই যীশু খ্রীষ্টের প্রকৃত সারবত্তা ছিল৷
  • যীশু পাপীদের ত্রান্কর্ত্তায় পরিনত হয়েছেন৷ প্রতিটি পাপীই, যে যেই হোক না কেন, কেবল যীশুর বাপ্তিস্ম, তাঁর ক্রুশীয় রক্ত, এবং তিনি যে নিজেই ঈশ্বর এই সত্যে, বিশ্বাস করবার দ্বারা পাপশূন্য হতে পারে৷ আমরা নীল, বেগুনী ও লাল সুত্রে আমাদের বিশ্বাসের দ্বারা-অন্য কথায়, যীশুর বাপ্তিস্ম, তাঁর রক্ত ও তাঁর ঈশ্বরত্বে বিশ্বাস করবার দ্বারা ঈশ্বরের বিচারাজ্ঞা থেকে রক্ষা পেতে পারি৷ যীশুই স্বর্গরাজ্যের দ্বার৷
  • প্রেরিত ৪:১২ পদ বলে, “আর অন্য কাহারও কাছে পরিত্রাণ নাই; কেননা আকাশের নীচে মনুষ্যদের মধ্যে দত্ত এমন আর কোন নাম নাই, যে নামে আমাদিগকে পরিত্রাণ পাইতে হইবে”৷ যীশু ব্যতীত অন্য কেউ সকল মানুষকে তাদের পাপ থেকে পরিত্রাণ করতে পারে না৷ যীশু ছাড়া আর কোনো ত্রান্কর্ত্তা নেই৷ যোহন ১০:৯ পদ বলে, আমিই দ্বার, আমা দিয়া যদি কেহ প্রবেশ করে, সে পরিত্রাণ পাইবে, এবং ভিতরে আসিবে ও বাহিরে যাইবে ও চরাণী পাইবে”৷ ১ তিমথীয় ২:৫ বলে, “কারণ একমাত্র ঈশ্বর আছেন; ঈশ্বরের ও মনুষ্যদের মধ্যে একমাত্র মধ্যস্থও আছেন, তিনি মনুষ্য, খ্রীষ্ট যীশু”, এবং মথি ৩:১৫ বলে, “কিন্তু যীশু উত্তর করিয়া তাঁহাকে কহিলেন, এখন সম্মত হও, কেননা এইরূপে সমস্ত ধার্ম্মিকতা সাধন করা আমাদের পক্ষে উপযুক্ত”৷ এই সবকটি পদ সেই সত্যের সাক্ষ্য দেয়৷
  • যীশু মানবদেহে এই পৃথিবীতে এসেছিলেন, এবং তাঁর বাপ্তিস্ম গ্রহণ করবার (নীল সুত্র) এবং তাঁর রক্ত সেচন করবার দ্বারা (লাল সুত্র), তিনি পাপীদের রক্ষা করেছেন৷ এইরূপে, যীশু সকল পাপীদের জন্য পরিত্রাণের দ্বার হয়েছেন৷ ঠিক যেভাবে আবাসের প্রাঙ্গণ পাকানো নীল, বেগুনী ও লাল সুত্রে নির্মিত ছিল, সেইভাবেই এই পৃথিবীতে এসে, প্রথমেই যোহন বাপ্তাইজকের নিকট বাপ্তিস্ম গ্রহণের মাধ্যমে নিজের উপর জগতের পাপ তুলে নিয়েছিলেন৷ সেইভাবে, তিনি বলিদানের নৈবেদ্যে, ঈশ্বরের মেষশাবকে পরিণত হয়েছিলেন (যোহন ১:২৯)৷
  • দ্বিতীয়, এইভাবে তাঁর বাপ্তিস্মের মাধ্যমে সকল পাপীদের অপরাধসকল তুলে নেওয়ার পর, তিনি তাদের স্থলে মৃত্যুবরণ করেছিলেন এবং যারা বিশ্বাস করে তাদের নুতন জীবন দিয়েছেন৷ তৃতীয়, এই যীশু স্বয়ং ঈশ্বর৷ আদিপুস্তক ১:১ বলে, “আদিতে ঈশ্বর আকাশমণ্ডল ও পৃথিবীর সৃষ্টি করিলেন,” এবং আদিপুস্তক ১:৩ বলে, “এবং ঈশ্বর কহিলেন, “দীপ্তি হউক, তাহাতে দীপ্তি হইল”৷ যীশুই লোগোস (logos) এর ঈশ্বর, যিনি তাঁর বাক্যের দ্বারা সমগ্র বিশ্বব্রহ্মান্ড ও তার মধ্যেকার সকল কিছু সৃষ্টি করেছিলেন৷
  • ঈশ্বর মোশিকে আবাস তাম্বুর প্রাঙ্গনের দ্বার নীল, বেগুনী ও লাল এবং মিহি পাকানো সুত্র দ্বারা তৈরী করতে বলেছিলেন৷ যীশু যিনি স্বয়ং ঈশ্বর, তিনি এই পৃথিবীতে মানব দেহে আগমন করে পাপীদের ধার্মিক করবার কার্য পূর্ণ এবং তাঁর বাপ্তিস্ম ও ক্রুশে তাঁর মৃত্যুর মাধ্যমে তাঁর লোকেদের তাদের সকল পাপ থেকে রক্ষা করেছিলেন৷ এই তিনটি পরিচর্যা হল সেই উপায় বা পথ যার দ্বারা খ্রীষ্ট পাপীদের রক্ষা করেছেন, এবং সেগুলি সত্যের প্রমাণ৷.
  • ইফিষীয় ৪:৪-৬ পদে প্রেরিত পৌল বলেছেন, “দেহ এক, এবং আত্মা এক; যেমন আবার তোমাদের আহ্বানের একই প্রত্যাশায় তোমরা আহূত হইয়াছ। প্রভু এক, বিশ্বাস এক, বাপ্তিস্ম এক, সকলের ঈশ্বর ও পিতা এক, তিনি সকলের উপরে, সকলের নিকটে ও সকলের অন্তরে আছেন৷” এই বাক্য পাপ থেকে নীল, বেগুনী ও লাল এবং মিহি পাকানো সুত্র দ্বারা নির্মিত পরিত্রাণকে দর্শায়৷
  • আমাদের আবাস তাম্বুর পুঙ্খানুপুঙ্খ পরীক্ষনের মাধ্যমে, আমাদের অবশ্যই তার সঠিক সত্য উপলব্ধি করতে হবে, এবং সেই উপায়ে আমাদের সকল পাপের ক্ষমা প্রাপ্ত হয়ে ধন্য হতে হবে৷